মেনু নির্বাচন করুন

গ্রাম আদালত বিধিমালা

গ্রাম আদালতে ২ ধরনের মামলা গ্রহন করা হয় ০১) ফৌজদারী মামলা , ০২) দেওয়ানি মামলা

 

মামলার  ফি বাবদ ফৌজদারী মামলা  ২ টাকা নেওয়া হয় এবং ০২) দেওয়ানি মামলা ৪ টাকা নেওয়া হয়।

সর্বচ্চ ৭৫,০০০/= টাকা পর্য়ন্ত সমস্যার মামলা গুলোর আবেদন গ্রহন করা হয় ।

 

১। এই বিধিমালা ১৯৭৬ সালের গ্রাম আদালত বিধিমালা নামে অভিহিত হইবে।

২। বিষয় বা প্রসঙ্গের পরিপন্থী কোন কিছু না থাকিলে এই বিধিমালায়-

(ক) “ ফরম “ অর্থ এই বিধিমালায় সংযোজিত কোন ফরমঃ

(খ) “অধ্যাদেশ “ অর্থ ১৯৭৬ সালের গ্রাম আদালত অধ্যাদেশ (১৯৭৬ সালের ৬১ নং অধ্যাদেশ)

(গ) ”ভাগ” অর্থ এই অধ্যাদেশের তফসীলের কোন ভাগ

(ঘ) আবেদনকারী” অর্থ এই অধ্যদেশের ৪ ধারার অধীন যিনি কোন আবেদন করেন।

(ঙ) “প্রতিবাদী “ অর্থ এই অধ্যাদেশের ৪ ধারার অধীন যাহার বিরুদ্ধে আবেদন করা হয়।

(চ) “ধারা” অর্থ এই অধ্যাদেশের কোন ধারা।

৩। (১) ৪ ধারার (১) উপ-ধারার মোতাবেক আবেদন লিখিতভাবে দাখিল করিতে হইবে এবং আবেদনকারী কর্তৃক স্বাক্ষরিত হইতে হইবে এবং উহা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান কর্তৃক পেশ করিতে হইবে। (২) ১. উপ-বিধিতে বণিুত আবেদনে নিন্ম লিখিত বিবরণ থাকিতে হইবে।

(ক) যে ইউনিয়ন পরিষদে  আবেদন করা হইয়াছে উহার নাম

(খ) আবেদনকারীর নাম ঠিকানা ও পরিচয়

(গ) প্রতিবাদীর নাম ঠিকানা ও পরিচয়

(ঘ) যে ইউনিয়নে অপরাধ সংঘটিত হইয়াছে  বা মামলার কারনের উদ্ভব হইয়াছে উহার নাম;

(ঙ) সংক্ষিপ্ত বিবরনাদি সহ অভিযোগ বা দাবীর প্রকৃতি ও মূল্যয়ন এবং প্রার্থিত প্রতিকার

৩। এই বিধি মোতাবেক মামলা প্রথম ভাগের সহিত সম্পর্কিত হইলে দুই টাকা এবং দ্বিতীয় ভাগের সহিত সম্পর্কিত হইলে আবেদনপত্রের সহিত চার টাকা ফিস জমা দিতে হইবে।